প্রতিদিন কতটা সময় ঘুমানো উচিত - How many hours you need to sleep

How many hours you need to sleep

প্রতিদিন কতটা সময় ঘুমানো উচিত - How many hours you need to sleep

আমাদের দৈনন্দিন জীবনের ব্যস্ততা প্রতিনিয়তই বাড়ছে। সেই সাথে কমছে অবসরের সময়। কর্মব্যস্ত জীবনে ঘুমানোর জন্য যেমন আমরা সময় পাইনা তেমনি সময় পেলেও মোবাইল, লেপটপ সহ বিভিন্ন গ্যাজেট আমাদের ঘুমের সময়কে কমিয়ে দিচ্ছে।

একজন মানুষের প্রতিদিন কতটা ঘুম প্রয়োজন?

বিভিন্ন গবেষনা সংস্থা ঘুমের প্রয়োজনীয় সময় নিয়ে গবেষনা করেছে। যেমন, ’যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল স্লিপ ফাউন্ডেশন’ এর ভাষ্য বয়স অনুযায়ী মানুষের ঘুমের দৈর্ঘ্য বিভিন্ন হবে। অনেকেই বলেন যে তাদের যথেষ্ট ঘুম হচ্ছেনা – কিন্তু সেই যথেষ্ট ঘুম বলতে কতটা  ঘুমের কথা বলছেন?

রুটিন না মেনে চলা, অ্যালকোহল সেবন, চা, কফি বা কোন এনার্জি ড্রিঙ্ক, রাত জেগে বিভিন্ন গ্যাজেট চালানো বা দিনের আলো, এমন সবকিছুই প্রাত্যহিক জীবন চক্রকে বাধাগ্রস্ত করতে পারে। জন্মাতে পারে অনিদ্রা রোগ (ইনসোমনিয়া)।

ভাল থাকুন ডট কম - www.valothakun.com -এর আজকের টপিকস, প্রতিদিন কতটা সময় ঘুমানো উচিত - How many hours you need to sleep ।

যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল স্লিপ ফাউন্ডেশনএর মতে বয়স অনুসারে কার কতটা ঘুম প্রয়োজন

  • নবজাতক (৩ মাস বা এর কম বয়সী) শিশু : ১৪ থেকে ১৭ ঘণ্টা পর্যন্ত।

                       তবে কিছু কম, যেমন ১১ থেকে ১৩ ঘণ্টা ঘুমও যথেষ্ট।

                       কিন্তু কোন ক্রমেই তা ১৯ ঘণ্টার চেয়ে বেশি হওয়া উচিৎ নয়।

  • ৪ মাস থেকে ১১ মাস বয়সী শিশু: কমপক্ষে ১০ ঘণ্টা আর সর্বোচ্চ ১৮ ঘণ্টার ঘুম প্রয়োজন।
  • ১ থেকে ২ বছর বয়সী শিশু: ১১ থেকে ১৪ ঘণ্টা।
  • প্রাক স্কুল বা ৩-৫ বছর বযসী শিশু: ১০ থেকে ১৩ ঘণ্টা।
  • স্কুল পর্যায় বা ৬ থেকে ১৩ বছরের শিশু : ৯-১০ ঘণ্টার ঘুম
  • টিন এজ বা ১৪-১৭ বছরের কিশোর কিশোরী: ৮-১০ ঘণ্টার ঘুম প্রয়োজন।
  • প্রাপ্ত বয়স্ক তরুণ বা ১৮ বছর থেকে ৬৪ বছর বয়সী বৃদ্ধ: ৭ থেকে ৯ ঘণ্টা ঘুমানো উচিত।
  • ৬৫ বা তার বেশি বয়সী: ৭ থেকে ৮ ঘণ্টার ঘুম হলে তা আদর্শ। তবে ৫ ঘণ্টার কম বা ৯ ঘণ্টার বেশি হওয়া উচিত নয়।

প্রতিদিন কতটা সময় ঘুমানো উচিত - How many hours you need to sleep, এ বিষয়টি আজকের আলোচনার টপিকস  ভাল থাকুন ডট কম - www.valothakun.com -এর।

ঘুম ভাল হওয়ার জন্য নিচের পদ্ধতি গুলো অনুসরণ করা যেতে পারে-

  • সবারই ঘুমের জন্য একটি নির্ধারিত সময় বা রুটিন মেনে চলা উচিত।
  • নিয়মিত ব্যায়াম করলে ঘুম ভাল হয়।
  • বেডরুমের আদর্শ তাপমাত্রা, সাউন্ড ও লাইট এর দিকে খেয়াল রখেতে হবে।
  • আরামদায়ক বিছানা ও বালিশ ব্যবহার করতে পারেন।
  • সন্ধ্যার পর অ্যালকোহল ও ক্যাফেইন না নেয়াই ভাল।
  • শোবারআগে ইলেক্ট্রনিক ডিভাইস বা গ্যাজেট ব্যবহার করা ঠিক না।
  • রাতের খাবার খেয়ে সাথে সাথে শুয়ে পরা উচিৎ না।

------------------------------------------------

আরো পড়ুন-

Vitamin A and Night Blindness : ভিটামিন এ ও রাতকানা রোগ

COVID-19 and Stroke : কভিড ১৯ এবং স্ট্রোক 

-----------------------------------------------

ডা. হাসান ইবনে আমিন

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ