Safety of Tea in Pregnancy- গর্ভাবস্থায় চা পান নিরাপদ কিনা

Safety of Tea in Pregnancy

Safety of Tea in Pregnancy- গর্ভাবস্থায় চা পান নিরাপদ কিনা

চা শুধু আমাদের দেশেই না বিশ্বব্যাপী অন্যতম জনপ্রিয় পানীয়। এমনকি গর্ভাবস্থাযেও অনেক মহিলারা চা খেতে পছন্দ করেন। কারো কারো ক্ষেত্রে এমন হয় যে চা না খেলে খুবই অসুস্থ বোধ করেন। কিন্তু, Safety of Tea in Pregnancy- গর্ভাবস্থায় চা পান নিরাপদ কিনা? আমরা কতটুকু জানি?

কেউ কেউ গর্ভাবস্থার শুধুমাত্র পানীয় হিসেবে চা খান। আবার কেউ মনে করেন যে চা খেলে  গর্ভাবস্থার শেষ সপ্তাহগুলিতে প্রসবের জন্য প্রস্তুতিতে তা সহায়ক হিসেবে কাজ করবে। অনেক মা ই বিশ্বাস করেন যে Tea in Pregnancy- গর্ভাবস্থায় চা পান করা নিরাপদ, কারণ এটি প্রাকৃতিক বা ন্যাচারাল। কিন্তু বাস্তবতা হলে কিছু চা আছে যা কিনা গভাবস্থায় ক্ষতির কারণ হতে পারে। এ বিষয়ে আজ বিস্তারিত বলার চেষ্টা করব। কোন কোন ধরনের চা গভাবস্থায় খাওয়া যাবে বা খাওয়া ঠিক না এবং খাওয়া গেলেও কতটুকু খাবেন।

 ভাল থাকুন ডট কম - www.valothakun.com এর আজকের আলোচনা Safety of Tea in Pregnancy- গর্ভাবস্থায় চা পান নিরাপদ কিনা

প্রথমেই বলব,যেকোন ধরনের ক্যাফিনেটেড চা খাওয়াই কমিয়ে দিন:

ব্ল্যাক টি, গ্রীন টি, হোয়াইট টি, সাধারণ চা সবই সাদারণত ক্যামেলিয়া সিনেনেসিস প্রজাতির গাছের পাতা থেকে প্রস্তুত করা হয়। এদের প্রধান বৈশিষ্ট্য হল এরা সবাই ক্যাফেইন সমৃদ্ধ। ক্যাফিন একটি প্রাকৃতিক স্নায়ু উত্তেজক যা গর্ভাবস্থায় অবশ্যই অধিক মাত্রায় গ্রহণ করা উচিত নয়।

প্রতি কাপ (২৪০ মিলি) বিভিন্ন রকম চা তে কতটুকু ক্যাফেইন থাকতে পারে- [1], [2]

ক. ম্যাচা টি: 60-80 মিলিগ্রাম

খ. ওলোং চা: 38-55 মিলিগ্রাম

গ. ব্ল্যাক টি: 47-55 মিলিগ্রাম

ঘ. সাধারণ চা: 47-55 মিলিগ্রাম

ঙ. সাদা চা: 25-50 মিলিগ্রাম

চ. গ্রিন টি: 29-49 মিলিগ্রাম

ক্যাফিন কিন্তু সহজেই প্লাসেন্টা (গর্ভে বাচ্চা থাকার থলি) অতিক্রম করতে পারে এবং গর্ভের শিশুর অপরিণত যকৃত বা লিভারে সমস্যা করতে পারে। এজন্য শিশুদেরও আমরা বলি কম পরিমানে চা খেতে বা চা একেবারেই না খেতে।

Safety of Tea in Pregnancy- গর্ভাবস্থায় চা পান নিরাপদ কিনা এ বিষয়ে ভাল থাকুন ডট কম - www.valothakun.com এর আজকের আলোচনা 

গবেষণায় দেখা যায় যে গর্ভাবস্থায় অত্যাধিক ক্যাফিনের সংস্পর্শে আসা শিশুদের নির্ধারতি সময়ের পূর্বেই জন্মের ঝুঁকি (প্রি টার্ম ডেলিভারি) বা জন্মের সময় কম ওজন (লো র্বাথ ওয়েট) বা জন্মগত ত্রুটি থাকতে পারে। গর্ভাবস্থায় উচ্চ ক্যাফিন গ্রহণের ফলে গর্ভপাত (মিস ক্যারেজ) এবং অবস্ট্রাক্টেড লেবর (ডেলিভারির সময় র্দীঘায়িত হওয়া) -র ঝুঁকিও বাড়তে পারে। [3]   

Tea in Pregnancy- গর্ভাবস্থায় চা পান –এর সময় খেয়াল রাখতে হবে যেন ক্যাফিন গ্রহণের পরিমাণ দিনে সর্বোচ্চ ৩০০ মিলিগ্রা এর মাঝে সীমাবদ্ধ থাকে। এতে গর্ভাবস্থার এই ঝুঁকিগুলি অনেক কমে যায়। [4]

তবে অনেক গর্ভবতী মহিলারা ক্যাফেইনের প্রতি বেশি সংবেদনশীল (হাইপার সেনসিটিভিটি রিয়েকশন) থাকেন। তাই তাদের আরো কম মাত্রায় ( প্রতিদিন সর্বোচ্চ ১০০ থেকে ২০০ মিলিগ্রামের মাঝে) ক্যাফেইন গ্রহণ করা উচিৎ। [5] 

 

ক্যাফিনেটেড চা’ তে কফির চেয়ে কম ক্যাফিন থাকে এবং সাধারণত গর্ভাবস্থায় পান করা নিরাপদ বলে বিবেচিত হয়। তবু, প্রতিদিন অতিরিক্ত পরিমাণে ক্যাফিন গ্রহণ করা এড়াতে দৈনিক চা গ্রহণের পরিমাণ সীমাবদ্ধ করা অত্যন্ত প্রয়োজন।

সুতরাং, ব্ল্যাক টি, গ্রীন টি, ম্যাচা চা, ওলং চা, হোয়াইট টি এবং সাধারণ চা-তে রয়েছে ক্যাফিন, যা একটি শক্তিশালী স্নায়ু উদ্দীপক, যা গর্ভাবস্থায়  সীমিত পরিমাণে গ্রহণ করা উচিত। নিরাপদ মাত্রায় Tea in Pregnancy- গর্ভাবস্থায় চা পান করলে ক্ষতি হবে না বড়ং ক্ষেত্র বিশেষে মা রা উপকৃত হতে পারেন।

 

Herbal Tea in Pregnancy- গর্ভাবস্থায় কিছু ভেষজ চা এবং এদের ঝুঁকিপূর্ণ পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া

ভেষজ চা শুকনো ফল, ফুল, মশলা বা ভেষজ থেকে তৈরী হয় এবং তাই কোনও ক্যাফিন থাকে না। তবে এগুলিতে গর্ভাবস্থায় অনিরাপদ হিসাবে বিবেচিত বিভিন্ন উপাদান থাকতে পারে, যার ফলে গর্ভাবস্থায় এক জন মা এর মারাত্মক পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া হতে পারে। যেমন-

গর্ভপাত (মিসক্যারেজ):

নিচের হারবাল বা ভেষজ উপাদানগুলো দিয়ে তৈরী চা বা রস আপনার গর্ভপাত বা অকাল প্রসবের ঝুঁকি বাড়িয়ে তুলতে পারে- [6]

  • fennel
  • fenugreek
  • sage
  • vervain
  • borage
  • pennyroyal
  • licorice
  • thyme
  • motherwort
  • lovage
  • blue cohosh
  • black cohosh
  • frankincense (in large amounts)
  • chamomile (in large amounts)

ইত্যাদি দিয়ে তৈরী চা বাংলাদেশে খুব বেশি পরিচিত না হলেও চীন সহ অনেক দেশে খুব জনপ্রিয়। তবে বাংলাদেশেও ধীরে ধীরে বিভিন্ন নামে এগুলো আশা শুরু হয়েছে।

 Safety of Tea in Pregnancy- গর্ভাবস্থায় চা পান নিরাপদ কিনা নিয়ে ভাল থাকুন ডট কম - www.valothakun.com আজ আপনাদের জন্য আলোচনা করছে

জরায়ু হতে রক্তক্ষরণ

যে চা গুলি গর্ভাবস্থায় মাসিকের রাস্তায় রক্তপাতকে বাড়িয়ে তুলতে পারে তার মধ্যে রয়েছে – [7]

  • motherwort
  • lovage
  • frankincense

 

জন্মগত  ত্র ুটি বা (Birth Defect)

নিচের চা গুলো গর্ভাবস্থায় খেলে শিশুর জন্মগত ত্রুটি হতে পারে। [8]

  • motherwort
  • borage

 

এধরনের হারবাল চা পানের অন্যান্য পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া

  • কিছু ক্ষেত্রে eucalyptus tea মারাত্মক বমি বমি ভাব বা ডায়রিয়ার কারণ হতে পারে। আরও কিছু, কেস রিপোর্টে সুপারিশ করা হয় যে গর্ভাবস্থায় নিয়মিত chamomile tea পান করা শিশুর হৃদপিন্ডে ক্ষতির কারণ হতে পারে। [9]
  • কিছু ভেষজ চা প্রেগনেন্সির অনেক ঔষধের সাথে রিয়েকশন করতে পারে। সুতরাং আপনি যদি র্গভাবস্থায় এধরনের চা পান করেন তবে অবশ্যই আপনার চিকিৎসককে জানাবেন। [10]
  • মনে রাখবেন যে, ভেষজ চা গুলোর সেফটির উপর সীমিত পরিমাণে গবেষণা হয়েছে। সুতরাং এধরনের হারবাল Tea in Pregnancy- গর্ভাবস্থায় চা পান না করাই ভাল।

 

কিছু চা দূষিত বা কন্টামিনেটেড হতে পারে

চা উৎপাদন সাধারণত কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রিত হয় না। এর অর্থ হল গর্ভাবস্থায় মহিলারা ভিভিন্ন রকম ক্ষতিকর ভারী ধাতুর অযাচিত মিশ্রণগুলি দ্বারা দূষিত চা পান করতে পারেন। [11] 

উদাহরণস্বরূপ, একটি সমীক্ষায় দেখা গেছে বিভিন্ন রকম চা এর নমুনার ২০% অ্যালুমিনিয়াম দ্বারা দূষিত ছিল এবং ৭৩% নমুনায় সীসার উপস্থিতি পাওয়া যায়। এসব হেভিমেটাল বা ধাতু গর্ভাবস্থায় অত্যন্ত অনিরাপদ। [12] 

অন্য এক গবেষণায় দেখা গেছে, Tea in Pregnancy- গর্ভাবস্থায় চা পান –এর ক্ষেত্রে প্রথম ট্রাইমেস্টারে সময় গ্রীন টি এবং হারবাল চা খাওয়া মহিলাদের মধ্যে রক্তের সীসার মাত্রা সাধারণ মাত্রার চেয়ে ৬% থেকে ১৪% বেশি, যা কিনা অত্যন্ত ভয়াবহ একটি তথ্য।

পৃথিবীর কোন দেশেই এসব হারবাল চা জাতীয় প্রোডাক্টের শক্ত নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ না থাকায় এদের সেফটি সম্পর্কে সঠিক ধারনা পাওয়া কঠিন এবং এসব কোম্পানীগুলোকে অধিকাংশ ক্ষেত্রেই হারবাল চা গুলোর মান নিয়ন্ত্রণে উদাসীন দেখা যায়। তবে আপনি নামী ও বিশ্বস্ত ব্র্যান্ডগুলি থেকে চা কিনে খেলে ঝুাক কিছুটা কমিয়ে আনতে পারবেন। তবে এধরনের হারবাল চা না খাওয়াই ভাল।

 

গর্ভাবস্থায় কিছু নিরাপদ চা 

গর্ভাবস্থায় বেশিরভাগ ক্যাফিনেটেড চা পান করা নিরাপদ হিসাবে বিবেচিত হয়। অর্থাৎ বাংলাদেশে যে চা আমরা পান করি তা পরিমিত মাত্রায় ( প্রতিদিন ৩০০ মিলিগ্রামের কম ক্যাফেইন) পান করলে সম্পূর্ণ নিরাপদ। [13]

তবে যে মহিলারা বিশেষত ক্যাফিনের প্রতি সংবেদনশীল বা ক্যাফেইন খেলে ক্ষতি হয় তারা প্রতিদিন সর্বোচ্চ ১০০ মিলিগ্রাম ক্যাফেইন গ্রহণ করতে পারেন।

আর ভেষজ চা এর ব্যপারে আবার বলব যে, ভেষজ চা গুলোর সেফটির উপর সীমিত পরিমাণে গবেষণার রয়েছে। সুতরাং এধরনের হারবাল চা গর্ভাবস্থায় না খাওয়াই ভাল। যদিও আমাদের দেশে খুব সহজ লভ্য না, তবে নিচের তিন রকম ভেষজ চা গর্ভাবস্থায় পান করা যায়-

ক. Raspberry leaf (রাস্পবেরি পাতা) ‘র রস বা চা: এই চা'টিকে গর্ভাবস্থায় নিরাপদ হিসাবে বিবেচনা করা হয় এবং বিশ্বাস করা হয় ডেলিভারীর সময়কে কম করতে এবং জরায়ু প্রস্তুত করতে এটি সহায়তা করে। গবেষণা দেখায় যে এটি লেবরের (ডেলিভারির) দ্বিতীয় পর্যায়কে প্রায় ১০ মিনিট কমিয়ে আনতে পারে। [14]

খ. Peppermint (গোলমরিচ) এর রস বা চা- এই চা’টি গর্ভাবস্থায় নিরাপদ হিসাবে বিবেচিত হয়। সাধারণ ভাবে এই চা গ্যাস, বমি বমি ভাব, পেটের ব্যথা বা জ্বালা কমাতে ব্যবহৃত হয়। যদিও এর পক্ষে তেমন শক্ত গবেষনা খুজে পাওয়া যায়না।

গ. Ginger (আদা) ‘র রস বা চা- আদা হ'ল গর্ভাবস্থায় নিরাপদ একটি খাবার এবং এর রস বা এ থেকে তৈরী চা’ও গর্ভাবস্থায় নিরাপদ হিসাবে বিবেচিত হয়। গবেষণা দেখা যায় এটি বমি বমি ভাব এবং বমি হ্রাস করে। তবে শুকনো গ্রহণ করা হলে প্রতিদিন ১ গ্রাম অতিক্রম করা উচিত নয়। [15] 

যদিও সাধারণত নিরাপদ হিসাবে বিবেচিত, তবু রাস্পবেরি পাতার চা জরায়ু সংকোচন (Uterine contraction) বাড়াতে পারে এবং পিপারমিন্ট-এর চা বা রস জরায়ু পথে রক্তক্ষরণ বাড়াতে পারে। গর্ভাবস্থার প্রথম ট্রাইমেস্টারে এই চা-গুলো নিরাপদ কিনা তা নিয়ে কিছু বিতর্ক রয়েছে এবং তাই গর্ভাবস্থায় –এর ক্ষেত্রে প্রথম ১২ সপ্তাহে এই দুটি চা পান না করাই ভাল।

 

Tea in Pregnancy- গর্ভাবস্থায় চা পান নিয়ে সবশেষে বলব,

ব্যাপক জনপ্রিয়তা সত্ত্বেও, সব রকমের চা গর্ভাবস্থার জন্য নিরাপদ না। তবে ক্যাফিনেটেড চা গুলো বিশেষ করে বাংলাদেশে সাধারণ ভাবে আমরা যেসব চা পান করি তা নির্দিষ্ট মাত্রার নীচে পান করলে গর্ভাবস্থায় তেম ক্ষতি হয় না। বেশির ভাগ ভেষজ চা ক্ষতিকর। যদিও খুব একটা প্রচলন নেই তবে আমাদের আধুনা সমাজে এই চা এ বিস্তার ধীরে ধীরে বাড়ছে। তাই Tea in Pregnancy- গর্ভাবস্থায় চা পান –এর ব্যপারে সতর্ক থাকাই উত্তম।

 -----------------------------

আরো পড়ুন-

শীতে ত্বকের সুরক্ষায় করনীয়

Old Age Nutrition বা বার্ধক্যে পুষ্টি 

Vitamin A and Night Blindness : ভিটামিন এ ও রাতকানা রোগ

COVID-19 and Stroke : কভিড ১৯ এবং স্ট্রোক 

-------------------------------- 

ডা. হাসান ইবনে আমিন (Dr. Hasan Ebna Amin)

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ